আপনি কি অতিরিক্ত ফেসবুক বা হোয়াটস এপ এর সঙ্গে যুক্ত? জেনে নিন পরিনাম

আপনি কি অতিরিক্ত ফেসবুক বা হোয়াটস অ্যাপ এর সঙ্গে যুক্ত? জেনে নিন পরিনাম

ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ তো নিশ্চয় ব্যবহার করেন। লাইক বা শেয়ারে আপনি কি সেরা । ফেসবুকে পছন্দসই কিছু পোস্ট যেই না দেখলেন সঙ্গে সঙ্গে তা বন্ধুদের জানানোর জন্য ব্যস্ত হয়ে পড়েন। মুহূর্তে ক্লিক ‘শেয়ার’ বাটনে আর তা পোস্ট হয়ে যায় বন্ধুদের দেওয়ালে। তবে এটা কি জানেন যে সারাক্ষন ফেসবুক বা ম্যাসেঞ্জের এর সাথে যুক্ত থাকলে আপনি নিজেকে অনেক পিছিয়ে ফেলছেন। কারণ টি হলো এখানে কিন্তু আপনাকে কোনোরকম মাথা খাটাতে হচ্ছে না। সেদিক থেকে দেখতে গেলে আপনি কিন্তু নিজেকেও অলস করে তুলেছেন।

এটা মানতেই হবে যে, আজকাল জেনারেল নলেজ  বাড়ানোর জন্য বইয়ের ব্যবহারের পাশাপাশি এইসমস্ত সোশ্যাল নেটওয়ার্ক থেকেও প্রায় সবকিছুই পাওয়া যাচ্ছে। বেশিরভাগ প্রয়োজনীয় সাইট গুলো তাদের ডেইলী আপডেট করছে ফেসবুক ,টুইটার বা অন্নসমস্ত সোশ্যাল নেটওয়ার্ক গুলোতে। তবে কথায় আছে, কোনোকিছু বেশি ভালো নয়। তাই সাবধান এদেরকে কখনো আত্মতৃপ্তির জায়গা হিসেবে গড়ে উঠতে দেওয়া উচিত নয়।

এছাড়াও ফেসবুকে বেশি শেয়ার করলে ক্ষতি হবে আপনার স্মৃতিরও। কর্ণেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণার ফল বলছে, মাইক্রোব্লগিং সাইটে শেয়ার বা রি-টুইট ক্ষতি করছে মানুষের স্মৃতির। প্রতিনিয়ত ‘শেয়ার’ বা ‘রি টুইট’ করলে তৈরি হয় ‘কগনিটিভ ওভারলোড’। এই কগনিটিভ ওভারলোডের অর্থ হল ওয়ার্কিং মেমোরিতে চাপ বেড়ে যাওয়া। আমাদের ওয়ার্কিং মেমরি খুব কম স্মৃতি ধরে রাখতে পারে এবং এই মেমরি থাকেও খুব কম সময়। কিন্তু আমরা যখন শেয়ার বা টুইট করি তখন সেখানে নিজের কিছু থাকে না। অন্যের আইডিয়া শেয়ার করি।  ফলে এই মেমরিতে চাপ পড়ে এবং ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে মানুষের ওয়ার্কিং মেমরি।

এছাড়াও মার্কিন গবেষকেরা জানিয়েছেন, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইটে যাঁরা অতিরিক্ত সময় কাটান তাঁরা বাস্তবের বন্ধুদের সহমর্মিতার ও সাহচর্য থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। টুইটার ও  ফেসবুকের মতো সামাজিক যোগাযোগের ওয়েবসাইটগুলো মানুষকে আত্মকেন্দ্রিক করে তোলার প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠছে। এতে অতিরিক্ত সময় কাটানোর ফলে বাস্তবের বন্ধুত্বের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা কমে যায়।

আর সবথেকে বড়ো কথা হলো ফাঁকা আছেন তো নিজেকে একটু খেলাধুলা বা হাঁটাচলা এর মধ্যেও নিয়োজিত রাখুন।

আরো আকর্সনীয় আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন BanglarUtsab.co.in আপনার সাথে, আপনার পাশে।