দুঃস্থ পরীক্ষাথীদের বিনামূল্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দিচ্ছেন জলপাইগুড়ি শহরের একমাত্র মহিলা টোটো চালক পুতুল রাউত – BanglarUtsab

বিজ্ঞাপন

বাংলার উত্‍সব ডিজিটাল ডেস্ক, জলপাইগুড়ি, ২৭শে মার্চ: সোমবারই জানিয়ে দিয়েছিলেন যে দুঃস্থ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষাথীদের নিজের টোটোতে চড়িয়ে বিনামূল্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দেবেন। কথামতো সকাল থেকেই ব্যস্ত হয়ে পড়লেন নিজের কাজে।

আমরা জলপাইগুড়ি শহরের একমাত্র মহিলা টোটো চালক পুতুল রাউথের কথা বলছি। আর্থিক অনটনের কারনে নিজে অষ্টম শ্রেনীর পর আর পড়তে পারেননি। পরিবার টানতে ইরিক্সা টোটোকেই জীবিকা হিসেবে বেছে নিয়েছেন জলপাইগুড়ি নেতাজি পাড়ার পুতুল রাউত। আজ তার টোটোয় চেপেই পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছলেন শহরের দুঃস্থ উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের অনেকেই। সকাল হতেই ঘড়ি ধরে দুঃস্থ উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের বাড়ি বাড়ি থেকে তুলে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছে দিলেন তিনি।

জানিয়েছেন, জীবনের সব চাইতে বড় পরীক্ষার দিনগুলিতে দুঃস্থ পরিবারের ছাত্রছাত্রীদের যাতায়াতে যাতে কোন সমস্যা না হয় এর জন্যই তার এই ব্যবস্থা। পরীক্ষাথীদের শুধু পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়াই নয়, পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে অবিভাবকের মতো তাদের মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছেন পুতুল দেবী। পরীক্ষাথীরাও তার টোটো থেকে নামার সময় দিদিকে ধন্যবাদ জানাতে ভুলছেন না। আর অবিভাবকরা বলছেন, আজকের দিনে এমন মানুষ আছে ভাবতেই পারিনা। ভগবান ওনার মঙ্গল করুন।

এমনিতেই টোটো রিক্সায় ছাত্র টানায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে পুলিশের। কিন্তু পুতুল দেবীর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে আলাদা করে ছাড়পত্র দিয়েছে সদর ট্রাফিক পুলিশ। সদর ট্রাফিক ওসি শান্তা শীল জানালেন, সতিই মানবিক উদ্যোগ। তাই দায়িত্ববান এই টোটো চালককে আমরা আলাদা করে ছাড়পত্র দিয়েছি। বড় পরীক্ষার দিনে ব্যতিক্রমী এই মানবীকে কুর্নিশ জানিয়েছে শহর জলপাইগুড়ি।

সংবাদদাতাঃ পিনাকী রঞ্জন পাল

আকর্ষণীয় আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকুন BanglarUtsab.co.in আপনার সাথে, আপনার পাশে।

You May Also Like