পঞ্চায়েত নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করার বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলনে নামার হুমকি জলপাইগুড়ি জেলা বামফ্রন্টের – Banglar Utsab

বিজ্ঞাপন

জলপাইগুড়ি, ২৪ এপ্রিল : পঞ্চায়েত নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করা এবং শাসক দলের অগণতান্ত্রিক কার্য কলাপের বিরুদ্ধে বৃহত্তর আন্দোলনে পথে নামার হুমকি দিল জলপাইগুড়ি জেলা বামফ্রন্ট। মঙ্গলবার সকালে জেলা বামফ্রন্টের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সাংবাদিক সম্মেলনে জানান জেলা বামফ্রন্টের আহ্বায়ক সলিল আচার্য । তিনি জানান, সোমবার মনোনয়ন পত্র জমা দেওয়ার ঘটনাকে ঘিরে জেলার প্রায় সর্বত্রই শাসক দলের গুন্ডা গিরি চলেছে।

সশস্ত্র অবস্থায় তৃণমূল দুষ্কৃতীরা জেলার প্রায় সব কটি বিডিও অফিসের দখল নেয়। বিরোধী প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা দিতে দেওয়া হয় নি। মনোনয়ন পত্র ছিঁড়ে ফেলে শাসক দলের দুষ্কৃতীরা তান্ডব চালায়। বিরোধীদের গাড়ি ভাঙচুর করে তৃণমূলীরা। ছিনিয়ে নেয় টাকা পয়সা সহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী। আচার্য বলেন, অতীতের কে এল ও উগ্রপন্থীদের একাংশ আজ শাসক দলের সাথে যুক্ত হয়েছে। সশস্ত্র অবস্থায় ওই দুষ্কৃতীরা ও সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করেছে। পুলিশ প্রশাসনের চোখের সামনেই সব কিছু ঘটে চলেছে। অথচ পুলিশ প্রশাসন নীরব দর্শক। তিনি বলেন, জলপাইগুড়ি জেলা নির্বাচনী অবজারভারের সাথে বামফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ বুধবার দেখা করবেন। তাকে স্মারকলিপি ও দেওয়া হবে বামফ্রন্টের পক্ষে। নির্বাচনকে প্রহসনে পরিণত করতে উঠে পড়ে লেগেছে শাসক দলের সাথেই সংশ্লিষ্ট প্রশাসনও। অবাধ ও সুষ্ঠু ভাবে নির্বাচন পরিচালনা করার দাবিতে মানুষকে সাথে নিয়ে বামফ্রন্ট আগামীতে প্রয়োজনে আমরন অনশন কর্মসূচি পালন করবে বলে জানান তিনি। একই সাথে এদিন সলিল আচার্য জানান, এ রাজ্যে খাল কেটে কুমির এনেছে তৃণমূল। প্রতিযোগিতামূলক সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে বামফ্রন্টের উদ্যোগে ঐক্যবদ্ধ লড়াই তীব্রতর করা হচ্ছে । এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তৃণমূল আর বিজেপি একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ। এই দুই দলের রাজনৈতিক বোঝা পড়া মানুষ বুঝতে পারছেন। ঐক্যবদ্ধ ভাবে মানুষকে সাথে নিয়ে বামফ্রন্টের তরফে এই বিষয়েও আন্দোলন তীব্র থেকে তীব্রতর করা হচ্ছে বলে জানান তিনি ।

You May Also Like