Facebook Owner Mark Zuckerberg Success Story | Inspirational & Motivational Story

Facebook Owner Mark Zuckerberg Success Story | Inspirational & Motivational Story

দুনিয়াতে রোজ হাজার হাজার লোক জন্ম নেয় কিন্তু কিছু কিছু লোক দুনিয়া বদলানোর জন্য জন্ম নেয় ।

মার্ক জুকারবার্গকের সফলতার কাহানী

১৪ মে ১৯৮৪ তে Mark Zuckerberg কের জন্ম হয়, Mark এর ছোটোবেলার থেকেই কম্পিউটারের খুব সখ ছিলো, যার জন্য সে ছোটোবেলাতেই কম্পিউটারের প্রোগ্রাম লিখতো Mark এর বাবাও তাকে সাহায্যে করতেন কিন্তু Mark এর বুদ্ধি এত তেজ ছিলো যে Mark এর বাবাও তার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারতেন না তাই  Mark এর জন্য তিনি কম্পিউটার টিচার ডাকেন যে নাকি Mark কে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং সেখাত ।

Mark এর বুদ্ধির অনুমান এভাবে লাগানো যেতে পারে যে ছোটোবেলাতেই সে তার কম্পিউটার টিচার কে হারিয়ে দেয় Mark এর অনুভবি টিচারও তার প্রশ্নের উত্তর দিতে পারতেন না । Mark ১২ বছর বয়সেই একটি Messenger বানিয়ে ফেলে যার নাম ছিলো “Zuck Netযার প্রয়োগ সে তার বাবার ক্লিনিকে কথা বলার জন্য করতো ।

মার্ক জুকারবার্গ
মার্ক জুকারবার্গ

এর পর Mark Howard University ভর্তি হন সেখানেও সে খুবই Intelligent স্টুডেন্টস ছিলেন তার Intelligence দেখে সবাই তাকে Programing Expert বলে ডাকতে শুরু করে । কলেজের দিনে Facebooks নামে একটি বুক ছিলো যেখানে সব স্টুডেন্টসএর ফটো ও ডিটেলস থাকতো, এরকমি কিছু ভেবে Mark Zuckerberg Facemash নামে একটি ওয়েবসাইট বানায় যার বিশেষ কথা এটা ছিলো যে ছেলে মেয়ের ছবি সামনা সামনি রেখে Compeyar করতো যে এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি Hot কে, এই ওয়েবসাইটের সব থেকে মজার কথা এটা ছিলো যে ওয়েবসাইটে মেয়েদের ছবি সংগ্রহ করার জন্য Mark Zuckerberg Howard University র ওয়েবসাইট হ্যাক করেছিলেন যা নাকি ওই সময়ের সবথেকে Strong ওয়েবসাইট মানা যেতো, Facemash কলেজের স্টুডেন্টসদের মধ্যে খুব Famous ছিলো কিন্তু কিছু মেয়েরা এই ওয়েবসাইটকে আপত্তি জনক বলে এর বিরোধ করেছিলেন যার জন্য Mark কে অনেক বকা শুনতে হয়েছিলো ।

মার্ক জুকারবার্গ
মার্ক জুকারবার্গ

২০০৪ য়ে Mark Zuckerberg Thefacebook নামের একটি ওয়েবসাইট বানায় যেটা নাকি শুধু Howard বিখ্যাত ছিলো, ধীরে ধীরে এই ওয়েবসাইট অন্য অন্য University গুলাতেও বিখ্যাত হয়ে ওঠে তারপর দিন দিন Thefacebook র জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে এই দেখে Mark Zuckerberg সিদ্ধান্ত নেন যে Thefacebook র  ব্যাবহার শুধু স্টুডেন্টসরা নয় পৃথিবীর যাতে সবাই করতে পারে আর এর জন্য মাজপথেই সে University ছেরে দেয়, আর নিজের পুরা টিম নিয়ে এই ওয়েবসাইটে কাজ শুরু করে দেন । ২০০৫ Thefacebook এর নাম বদলে Facebook করে দেয়, ২০০৭ য়ে লক্ষ লক্ষ বিজনেস পেজ আর লক্ষ লক্ষ প্রোফাইল হয়ে যায়, ২০১১ তে এই ওয়েবসাইট পৃথিবীর সবথেকে বড় ওয়েবসাইট হয়ে যায়, নিজের খাটনি আর বুদ্ধির জেরে Mark Zuckerberg Internet দুনিয়ার রাজা হয়ে ওঠেন ।

Mark Zuckerberg যখন Facebook ওয়েবসাইটটি বানিয়ে ছিলেন তখন তার বয়স ছিলো ১৯ বছর, এত কম বয়সে সে পৃথিবীর প্রায় সব লোককে একসাথে জুড়ে দেন, আজকের দিনে Mark Zuckerberg দুনিয়ার সবথেকে Youngest Billionaire মধ্যে একজন।

 

যে বাক্তির কাছে সফলতার জন্য আশা ও আত্মবিশ্বাস থাকে, সেই বাক্তি সবথেকে উচুঁতে পৌঁছোতে পাড়ে ।