Rabindra Sangeet Lyrics | BanglarUtsab.co.in

Rabindra Sangeet Lyrics

Rabindranath Tagore

আমার পরান যাহা চায়

আমার পরান যাহা চায়,

তুমি তাই তুমি তাই গো ।

তোমা ছাড়া আর এ জগতে

মোর কেহ নাই, কিছু নাই গো ।।

তুমি সুখ যদি নাহি পাও,

যাও, সুখের সন্ধানে যাও,

আমি তোমারে পেয়েছি হৃদয়মাঝে-

আর কিছু নাহি চাই গো ।।

আমি তোমার বিরহে রহিব বিলীন,

তোমাতে করিব বাস-

দীর্ঘ দিবস, দীর্ঘ রজনী,

দীর্ঘ বরষ মাস ।

যদি আর-কারে ভালোবাস,

যদি আর ফিরে নাহি আস,

তবে তুমি যাহা চাও তাই যেন পাও-

আমি যত দুখ পাই গো ।।

 

একটুকু ছোঁয়া লাগে

একটুকু ছোঁয়া লাগে, একটুকু কথা শুনি-

তাই দিয়ে মনে মনে রচি মম ফাল্গুনী ।

কিছু পলাশের নেশা, কিছু না চাঁপায় মেশা,

তাই দিয়ে সুরে সুরে রংগে রসে জাল বুনি ।

যেটুকু কাছেতে আসে ক্ষণিকের ফাঁকে ফাঁকে

চকিত মনের কোণে স্বপনের ছবি আঁকে ।

যেটুকু যায় যে দূরে ভাবনা কাঁপায় সুরে,

তাই নিয়ে যায় বেলা নূপুরের তাল গুনি ।

 

আজ জ্যোত্স্নারাতে সবাই গেছে বনে

আজ জ্যোত্স্নারাতে সবাই গেছে বনে

বসন্তের এই মাতাল সমীঁরণে ।।

যাব না গো যাব না যে, রইনু পড়ে ঘরের মাঝে-

এই নিরালায় রব আপন কোণে

যাব না এই মাতাল সমীরণে ।।

আমার এ ঘর বহু যতন ক’রে

ধুতে হবে মুছতে হবে মোরে ।

আমারে যে জাগতে হবে, কী জানি সে আসবে কবে

যদি আমায় পড়ে তাহার মনে

বসন্তের এই মাতাল সমীরণে ।।

 

আমার বেলা যে যায় সাঁঝ-বেলাতে

আমার বেলা যে যায় সাঁঝ-বেলাতে

তোমার সুরে সুরে সুর মেলাতে॥

একতারাটির একটি তারে গানের বেদন বইতে নারে,

তোমার সাথে বারে বারে হার মেনেছি এই খেলাতে

তোমার সুরে সুরে সুর মেলাতে॥

এ তার বাঁধা কাছের সুরে,

ঐ বাঁশি যে বাজে দূরে।

গানের লীলার সেই কিনারে যোগ দিতে কি সবাই পারে

বিশ্বহৃদয়্পারাবারে রাগরাগিণীর জাল ফেলাতে—

তোমার সুরে সুরে সুর মেলাতে?।

 

আমি চিনি গো চিনি তোমারে ওগো বিদেশিনী

আমি চিনি গো চিনি তোমারে ওগো বিদেশিনী।

তুমি থাক সিন্ধুপারে ওগো বিদেশিনী॥

তোমায় দেখেছি শারদপ্রাতে, তোমায় দেখেছি মাধবী রাতে,

তোমায় দেখেছি হৃদি-মাঝারে ওগো বিদেশিনী।

আমি আকাশে পাতিয়া কান শুনেছি শুনেছি তোমারি গান,

আমি তোমারে সঁপেছি প্রাণ ওগো বিদেশিনী।

ভুবন ভ্রমিয়া শেষে আমি এসেছি নূতন দেশে,

আমি অতিথি তোমারি দ্বারে ওগো বিদেশিনী॥

 

আলো আমার আলো

আলো আমার,আলো ওগো, আলো ভুবন-ভরা।

আলো নয়ন-ধোওয়া আমার, আলো হৃদয়-হরা॥

নাচে আলো নাচে, ও ভাই, আমার প্রাণের কাছে–

বাজে আলো বাজে,ও ভাই হৃদয়বীণার মাঝে–

জাগে আকাশ,ছোটে বাতাস, হাসে সকল ধরা॥

আলোর স্রোতে পাল তুলেছে হাজার প্রজাপতি।

আলোর ঢেউয়ে উঠল নেচে মল্লিকা মালতী।

মেঘে মেঘে সোনা, ও ভাই, যায় না মানিক গোনা–

পাতায় পাতায় হাসি, ও ভাই, পুলক রাশি রাশি–

সুরনদীর কূল ডুবেছে সুধা-নিঝর-ঝরা॥

 

আহা আজি এ বসন্তে

আহা, আজি এ বসন্তে এত ফুল ফুটে,

এত বাঁশি বাজে, এত পাখি গায় ।।

সখীর হৃদয় কুসুমকোমল –

কার অনাদরে আজি ঝরে যায় !

কেন কাছে আস’, কেন মিছে হাস’,

কাছে যে আসিত সে তো আসিতে না চায় ।।

সুখে আছে যারা সুখে থাক্ তারা,

সুখের বসন্ত সুখে হোক সারা –

দুখিনী নারীর নয়নের নীর

সুখীজনে যেন দেখিতে না পায় ।

তারা দেখেও দেখে না,

তারা বুঝেও বুঝে না,

তারা ফিরেও না চায় ।।